সোমবার , ৩0 মার্চ ২0২0, Current Time : 3:26 am




করোনা আতঙ্কে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়ছে চীনারা, ভাড়া সাড়ে ২৫ লাখ!

সাপ্তাহিক আজকাল : 26/03/2020

করোনাভাইরাস ভয়াবহ আকার আকার ধারণ করছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। অপর দিকে চীনে দিনে দিনে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা শূন্যে নেমে আসছে। এমন অবস্থায় যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভাড়া বিমানে নিজ দেশে ফিরে আসতে চায় আমেরিকায় অবস্থানরত চীনা শিক্ষার্থীরা। আর সেজন্য তাদের মাথাপিছু গুনতে হবে ৩০ হাজার ডলার বা ২৫ লাখ, ৪৩ হাজার ৫৫৯ টাকা!

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রে করোনা ভাইরাস দিনে দিনে বিস্তার লাভ করায় দেশটিতে অবস্থানরত চীনের শিক্ষার্থীরা তাদের নিজ দেশে ফিরে যেতে চায়। আর এজন্য চীনে ফিরতে প্রাইভেট বিমানের (জেট বিমানের) এক একটি আসনের জন্য ৩০ হাজার মার্কিন ডলার খরচ করতে হবে। চীনের ধনী পরিবারের ওই শিক্ষার্থীরা তাদের পরিবারকে বুঝিয়ে এই টাকা সংগ্রহ করতে চায়।

জেফ গং নামের চীনের সাংহাইয়ের এক আইনজীবীর মেয়ে উইসকনসিন সিটিতে একটি হাইস্কুলে পড়াশুনা করে। তিনি তার মেয়েকে প্রশ্ন করেছেন যে, ১ লক্ষ ৮০ হাজার উয়ান বা ৩৬ হাজার ৭০০ ইউএস ডলার (মেয়ে) পকেট খরচের জন্য দরকার নাকি সে বাড়ি আসার জন্য বিমান ভাড়া চায়?

তিনি বলেন, আমার মেয়ে আমাকে জানিয়েছে ‘বাবা আমি বাড়ি যাবো।’ আমার মেয়ে বাড়ি ফেরার জন্য আমার কাছে আকুতি জানিয়েছে।

আকাশপথের তথ্য দান কারী প্রতিষ্ঠান ভ্যারি ফ্লাইটের তথ্যমতে, মঙ্গলবার পর্যন্ত চীনে আসা এবং চীন থেকে যাওয়ার জন্য মোট ৩৮০০ ফ্লাইটের মধ্যে মোট ৩১০২ টা ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে।

চার্টার ফ্লাইটগুলির জন্য একটি বৈশ্বিক বুকিং সেবা সংস্থার কমার্শিয়াল পরিচালক এ্যানেলিস গার্সিয়া জানিয়েছেন, দেশে ফেরার জন্য বিমান চলাচলের অভাব থাকায়, শিক্ষক শিক্ষার্থীরা নিজেরা গ্রুপ গ্রুপ করে ব্যক্তিগত চার্টার্ট বিমান ভাড়া নিতে চাচ্ছে।

এয়ার চার্টার সার্ভিসের গণযোগাযোগ ও বিজ্ঞাপন ম্যানাজার গ্লেন ফিলিপস জানিয়েছেন, আমার যুক্তরাষ্ট্র থেকে চীন পর্যন্ত কয়েকটি প্রাইবেট বিমানের ব্যবস্থা করেছি। যেগুলো নিউ ইয়র্ক ও বোসটন থেকে সাংহাই, সান জোশে থেকে হংকং এবং লস অ্যাঞ্জেলেস থেকে গুয়াংজুর পথে চলাচল করবে।

চীন, ইতালির পরেই করোনায় বেশি সংখ্যক মানুষ আক্রান্ত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) সতর্ক করেছে, ইউরোপের পর করোনাভাইরাসের বিস্তারের নতুন কেন্দ্র হয়ে উঠতে পারে যুক্তরাষ্ট্র। ডব্লিউএইচও মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা দ্রুতগতিতে বাড়তে দেখছি। এ থেকে আশঙ্কা করা যায় যুক্তরাষ্ট্র করোনা বিস্তারের নতুন কেন্দ্র হয়ে উঠতে পারে।

যুক্তরাষ্ট্রে ইতিমধ্যেই ৬০ হাজার ৬৫৩ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। মারা গেছেন ৮১৯ জন।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.