রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২0২0, Current Time : 8:46 am




এলো অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প

সাপ্তাহিক আজকাল : 05/12/2019

অ্যান্টিবায়োটিকের ভয়ে যারা পোলট্রি মুরগির মাংস খাওয়া ছেড়েই দিয়েছেন, তাদের জন্য সুখবর দিয়েছেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) একদল গবেষক। পোলট্রি শিল্পের জন্য অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প হিসেবে একটি প্রোবায়োটিক উদ্ভাবন করেছেন তারা। মাঠ পর্যায়ে সফল পরীক্ষার মাধ্যমে ইতিমধ্যে তারা প্রমাণ করেছেন যে তাদের উদ্ভাবনকৃত প্রোবায়োটিক অধিক কার্যকর, লাভজনক, স্বাস্থ্যসম্মত ও পরিবেশবান্ধব।

গবেষক দলটি জানিয়েছেন, অ্যান্টিবায়োটিক মুরগির অন্ত্রে থাকা সব ধরনের জীবাণু মেরে ফেলে। যে কারণে ক্ষতিকর জীবাণুর সঙ্গে উপকারী জীবাণুও মারা যায় এবং মুরগির বৃদ্ধি কমে যায়। এ ছাড়া অ্যান্টিবায়োটিকের মাত্রাতিরিক্ত ব্যবহার মানুষের স্বাস্থ্যের জন্যও ঝুঁকিপূর্ণ। বিপরীতে প্রোবায়োটিক ব্যবহারে কেবল ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা কমে, মুরগির মৃত্যুহার কমে, কম খাবার দেওয়ার পরও ওজন দেড় গুণ বেশি বৃদ্ধি পায়। এর ব্যবহারে মুরগির রক্তে হিমোগ্লোবিনের পরিমাণ এবং রোগপ্রতিরোধী কোষের সংখ্যা বেশি হয়, খারাপ কলেস্টেরল ও গ্লুকোজের পরিমাণ কমে যায়। ফলে ডায়াবেটিস আক্রান্তদের জন্য এ মুরগির মাংস উপকারী হয়। গবেষক দলটি জানিয়েছেন, তারা গবেষণায় দেখেছেন অ্যান্টিবায়োটিক ব্যবহার ছাড়াও মুরগি পালন সম্ভব এবং অধিক লাভজনক। তাদের উদ্ভাবিত নতুন এই প্রোবায়োটিক দেশের পোলট্রি শিল্পে ব্যবহার করলে খামারি ও ভোক্তা লাভবান হবেন।
মাঠ পর্যায়ে পরীক্ষায় সাফল্য আসার পর রবিবার যবিপ্রবির প্রশাসনিক ভবনের সম্মেলন কক্ষে ক্যাম্পাসের আশপাশের গ্রামের পোলট্রি খামারিদের সামনে গবেষক দলটি অ্যান্টিবায়োটিক ও প্রোবায়োটিক ব্যবহারের তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরেন।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.