রবিবার, ১৯ জানুয়ারী ২0২0, Current Time : 8:04 am




যেভাবে ইসরায়েলি গুপ্তচরদের ধরল হামাস

সাপ্তাহিক আজকাল : 05/12/2019

গত বছরের নভেম্বর মাসে গাজা উপত্যকায় ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা পরিচালিত একটি গোপন অভিযান সম্পর্কে নতুন তথ্য ফাঁস হয়েছে। যার ফলে ইসরায়েলি বাহিনীর সঙ্গে হামাসের ব্যাপক যুদ্ধের সূত্রপাত ঘটেছিল।

আল-জাজিরা অ্যারাবিকের ‘মা খাফিয়া আযম’ নামের একটি প্রোগ্রামে বলা হয়, আট ইসরায়েলি গুপ্তচর ফিলিস্তিনিদের ছদ্মবেশ ধারণ করেছিলেন এবং গাজায় একটি ফিলিস্তিনি পরিবারের উপাধি নিয়ে প্রবেশ করেছিল। হামাসের ব্যক্তিগত গোপন তথ্য জানার জন্য ইসরায়েলি গুপ্তচরেরা গাজায় বিভিন্ন গোপন যন্ত্র স্থাপন করেছিল।
পরে, গাজার খান ইউনিস নামক স্থানে হামাসের একটি টহল দল সেই ইসরায়েলি এজেন্টদের থামিয়ে প্রায় ৪০ মিনিট জিজ্ঞাসাবাদ করে এবং তাদের জবাব নিয়ে সন্দেহ হয়। এসময় তাৎক্ষণিক ইসরায়েলি এজেন্টরা সাইলেন্সার লাগানো অস্ত্র নিয়ে টহল দলের উপর হামলা চালায়। তারা হামাস নেতা নুর বারাকা ও তার সহযোগী মুহাম্মদ আল-কুরাকে হত্যা করে। এসময় ইসরায়েলি গুপ্তচর দলের প্রধান ‘মেনি’ নিহত হয়।

গত রবিবার প্রচারিত সেই অনুষ্ঠানে বলা হয়, এটি ১৯৫৭ সালে গঠিত ইসরায়েলি গোয়েন্দা সংস্থা সাইরেত মাতকাল ইউনিটের কাজ। যাদের লক্ষ প্রতিপক্ষের গোয়েন্দা তথ্য সংগ্রহ।

হামাসের উপর চালানো হামলা সময় ইসরায়েলি গুপ্তচরদের কথোপকথন হয়েছে সেগুলো অনুষ্ঠানে প্রথমবারের মতো প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে ‘উম্ম মুহাম্মদ’ নামের একজনকে হিব্রু ভাষায় প্রশ্ন করতে শোনা যায় যে, অস্ত্র কোথায়। অপর একজনকে তাদের দলের প্রধানকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার কথা শোনা যায়।

ইসরায়েলি গুপ্তচরেরা আক্রান্ত হওয়ার পর খান ইউনিস এলাকায় ব্যাপক বিমান হমলা চালায় ইসরায়েলি বাহিনী। তারা হেলিকপ্টারের মাধ্যমে তাদের গুপ্তচরদের সেখান থেকে সরিয়ে নেয়।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.