সোমবার , ১৮ নভেম্বর ২0১৯, Current Time : 3:09 am




আবারও এনওয়াই ওয়ানের সংবাদ শিরোনাম খানস

সাপ্তাহিক আজকাল : 19/10/2019


নিউইয়র্ক
আবারও নিইউয়র্কের মূলধারার সংবাদ মাধ্যম স্পেটট্রাম এনওয়াই ওয়ানের সংবাদ শিরোনাম হলো খান টিউটোরিয়াল ও ড্রিম চেজার্সের এসএইচএসএটি প্রোগ্রাম। এ সপ্তাহের শুরুতে তাদের কার্যক্রমের সফলতা নিয়ে প্রশংসা সূচক সংবাদ প্রকাশিত হয় ওই সংবাদ মাধ্যমে। টিউটোরিং ও শিক্ষা পরামর্শ সুবিধা দিতে ব্রঙ্কস সায়েন্স স্কুলের প্রাক্তন ছাত্র এটর্নী জেসন ক্লার্ক ড্রিম চেজার্স প্রতিষ্ঠা করেন এবং খান টিউরোরিয়ালের সহযোগিতায় নিউইয়র্কের খ্যাতনামা পাবলিক স্কুলের সুবিধা বঞ্চিত শিক্ষার্থীদের এসএইচএসিটি সুবিধা প্রদান করে থাকে। প্রতিষ্ঠান দু’টির পক্ষ থেকে জানানো হয়, স্কুলের ফান্ড না থাকা সত্ত্বেও ড্রিম চেজার্সের টিউটোরিং অংশীদার হিসেবে নিউইয়র্কের সব এলাকার শিক্ষার্থীদের কাছে এই সুবিধা পৌচ্ছে দেয়াই হচ্ছে খান টিউরিয়ালের উদ্দেশ্য। প্রতিষ্ঠানটি জানায়, অভাবনীয় সাফল্য পাওয়ায় ড্রিম চেজার্স আগামী বছর প্রোগ্রামটি দক্ষিণ-পূর্ব কুইন্সে এ সুবিধা চালু করার পরিকল্পনা করছে।

খানস টিউটোরিয়ালের প্রেসিডেন্ট ও সিইও বলেন, আজ থেকে ৩২ বছর আগের ঘটনা। আমি লন্ডন, ঢাকা, ভার্জিনিয়া হয়ে নিউইয়র্কের এলমাষ্টের একটি পাবলিক স্কুলে ফাষ্ট গ্রেডে ভর্তি হই। স্কুলে পেটোরিকো, মেক্সিকো, কলম্বিয়া, জ্যামাইকা, ত্রিনিদাদ, নাইজেরিয়া, চীন, কোরিয়া, ইটালি, বারতসহ বিভিন্ন দেশের ছেলে মেয়েদের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব হয়। সত্যি বলতে কি সেদিন বাংলাদেশ সম্পর্কে ওদের কোন ধারনাই ছিল না। স্কুলের বন্ধুরা আমার কাছে জানতে চায় বাংলাদেশ কোথায়। আমি সেদিন তাদের জানিয়েছিলাম বাংলাদেশ ভারতের পাশে। এমনকি নতুন করে যাদের সঙ্গে আমার বন্ধুত্ব হয়েছিলো তাদের কাছেও আমাকে বারবার একই উত্তর দিতে হয়। কিন্তু সে অবস্থা আজ আর নেই। পরিস্থিতি বদলে গেছে। খানস টিউটোরিয়াল এবং ড্রিম চেজার্সের মতো প্রতিষ্ঠানের সাফল্য গাথা আজ স্পেকট্রাম এনওয়াই ওয়ানের মতো যুক্তরাষ্ট্রের মূলধারার সংবাদ মাধ্যমে ফলাও করে প্রকাশিত হচ্ছে।
ড. ইভান খান বলেন, নিউইয়র্কের স্পেশালাইসড হাইস্কুলগুলোতে দ্বিতীয় বৃহত্তম অভিবাসী গ্রুপ হিসেবে নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করতে গত ২৫ বছর ধরে এখানে বাংলাদেশি কমিউনিটি কাজ করে আসছে। এনওয়াই ওয়ান এর আগেও আমাদেও নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে। এবারও গুরুত্বপূর্ণ এ সংবাদ মাধ্যমে আমাদের খবর প্রকাশ এরই ধারবাহিকতা।
ড্রিম চেজার্সের প্রতিষ্ঠাতা এটর্নী জেসন ক্লার্ক বলেন, আমি এটা মনে করিনা যে, হারলেম হোক বা সাউথইষ্ট কুইন্স, অথবা ব্রঙ্কসের শিক্ষার্থীরা নিজেরা এ কাজ করতে পারেনা। ওদের কাজ করার জন্য প্রয়োজন সুযোগ সৃষ্টি এবং এ সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় উপকরন যোগান দিলেই ওরা তা পারবে।
এ প্রসঙ্গে জন ভ্যান ক্লিফ নামে এক অভিভাবক বলেন, নিউইয়র্ক শহরের পাবলিক স্কুল গুলোতে মেধাবী সংখ্যালঘু শিক্ষার্থীদের এ সংক্রান্ত সুযোগ সুবিধা প্রদানে অনেক ঘাটতি পরিলক্ষিত হচ্ছে। যে সুযোগ ড্রিম চেজার্স করে দিচ্ছে।
উল্লেখ্য, খান টিউরোরিয়াল বর্তমানে ব্রুকলিন, ব্রঙ্কস, জ্যাকসন হাইটস, জ্যামাইকা, এস্টোরিয়া, ওজন পার্ক, ফ্লোরাল পার্কসহ নিউইয়র্ক সিটির ১০টি জায়গায় নতুন আসা অভিবাসী ও নি¤œ আয়ের পরিবারের সন্তানদের জন্য তাদের টিউটোরিং সহায়তা দিয়ে আসছে। ১৯৯৪ সালে প্রতিষ্ঠার পর এ পর্যন্ত ৩ হাজার ৩’শ ৮৩ জন শিক্ষার্থীকে নিউইয়র্কের স্পেশলাইশড হাইস্কুলে ভর্তি হতে সাহায্য করেছে খান টিউটোরিয়াল।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.