সোমবার , ১৮ নভেম্বর ২0১৯, Current Time : 2:37 am




দুই বন্দীকে কেন্দ্র করে রুশ-ইসরাইল দ্বন্দ্ব

সাপ্তাহিক আজকাল : 19/10/2019

আজকাল ডেস্ক
রাশিয়া সফরের ব্যাপারে ইসরাইলের নাগরিকদের প্রতি সর্তকতা জারি করেছে তেল আবিব। মাদক সংক্রান্ত মামলায় ইসরাইলের ২৫ বছর বয়সী এক নারীকে রাশিয়ার একটি আদালত সাড়ে সাত বছর কারাদ- দেয়ার পর এই সতর্কতা জারি করা হলো। গত এপ্রিল মাসে নাআমা ইসাচার নামে এ নারীকে মস্কোর বিমানবন্দর থেকে আটক করে রুশ নিরাপত্তারক্ষীরা। ওই নারী ভারত থেকে রাশিয়া হয়ে ইসরাইলে যাচ্ছিলেন। সেসময় তার কাছে বেশ খানিকটা গাঁজা বা মারিজুয়ানা পাওয়া যায়। এ ঘটনায় রাশিয়ার আদালত নাআমাকে সাড়ে সাত বছর কারাদ- দেয়।
এর আগে তার মুক্তি দাবি করেছিল ইসরাইল। কিন্তু রুশ আদালত ইসরাইলের বক্তব্যকে আমলে না নিয়ে তাকে বিচার প্রক্রিয়ায় কারাদন্ড দেয়। রুশ আদালতের রায়কে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলছে তেল আবিব এবং এরপরই ইসরাইলের নাগরিকদের প্রতি ভ্রমণ সর্তকতা জারি করা হলো। ধারণা করা হচ্ছে, রুশ আদালতের এই রায়ের সঙ্গে আসলেই রাজনীতির যোগসূত্র থাকতে পারে। এই ধারণার মূলে রয়েছেন অ্যালেক্সি বুরকভ নামের এক রুশ নাগরিক।
ইসরাইলি নাগরিক নাআমা রাশিয়ায় আটক হওয়ার আগে রাশিয়ার একজন নাগরিককে ইসরাইল আটক করেছিল এবং সাইবার অপরাধে জড়িত থাকার অভিযোগে তাকে আমেরিকার কাছে হস্তান্তর করবে বলে আলোচনা চলছে। এ পরিপ্রেক্ষিতে ইসরাইল দাবি করছে অ্যালেক্সি বুরকভ নামে ওই রুশ নাগরিকের মুক্তির জন্য দরকষাকষি করতে মার্কিন বংশোদ্ভূত ইসরাইলি নাগরিক নাআমা ইসাচারকে রাশিয়া আটক করেছে।
রাশিয়ার আরটি নিউজ চ্যানেল বলেছে, নামাআকে সম্ভবত রাশিয়ার অ্যালেক্সি বরিকবের সঙ্গে বন্দী হিসেবে বিনিময় করা হতে পারে। ২০১৫ সালে বরিকভ ইসরাইল সফর করার সময় তেল আবিব তাকে আটক করে। সাইবার ক্রাইম করার সন্দেহে আমেরিকা ও ইসরাইল তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনে। আমেরিকা এখনো বরিকভকে হাতে পাওয়ার চেষ্টা করছে। তবে বরিকভ ওই অভিযোগ সবসময় অস্বীকার করে আসছেন।
এ বিষয়ে ইসরাইলের প্রেসিডেন্ট রুভেন রিভলিন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভøাদিমির পুতিনের কাছে একটি চিঠি দিয়েছেন। ওই চিঠিতে তিনি বলেছেন, নাআমা বড় ধরনের ভুল করেছেন এবং তিনি তার ভুল স্বীকার করেছেন। কিন্তু যে তরুণী নারী এর আগে এই ধরনের কোন অপরাধমূলক কর্মকা- করেনি তার বিরুদ্ধে আদালতের এমন রায় তার ব্যক্তিগত জীবনে ধ্বংসাত্মক প্রভাব ফেলবে। এর আগে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু প্রেসিডেন্ট পুতিনের কাছে ব্যক্তিগতভাবে ওই নারীর মুক্তির জন্য অনুরোধ জানিয়েছিলেন। কিন্তু রাশিয়া তা আমলে নেয়নি।
প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর অনুরোধ উপেক্ষা করেই রাশিয়ার আদালত ওই ইসরাইলি নারীকে সাড়ে সাত বছরের কারাদ- দিয়েছে। রাশিয়ার আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নাআমার বিরুদ্ধে মাদক চোরাচালানের মামলা দায়ের করেছিল। ইসরাইলের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় রাশিয়ার আদালতের এই রায়কে ‘কঠোর’ এবং ‘একপেশে’ বলে মন্তব্য করেছে।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.