শনিবার, ১৭ অগাস্ট ২0১৯, Current Time : 2:52 am
  • হোম » এ সপ্তাহের খবর »
    ‘আজকাল’র সাথে সাক্ষাৎকারে নার্গিস আহমেদ
    ফোবানা কনভেনশন সফলে সহযোগিতার আহ্বান




‘আজকাল’র সাথে সাক্ষাৎকারে নার্গিস আহমেদ
ফোবানা কনভেনশন সফলে সহযোগিতার আহ্বান

সাপ্তাহিক আজকাল : 22/06/2019

বিশেষ প্রতিনিধি
নিউইয়র্কের নাসাউ কলোসিয়ামে আগামী ৩১ আগষ্ট তিনদিনব্যাপী যে ৩৩তম ফোবানা কনভেনশন শুরু হচ্ছে তাকে সফল করতে সর্বাত্মক প্রয়াস চলছে বলে জানিয়েছেন কনভেনশন হোস্ট কমিটির কনভেনর ও বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সভাপতি নার্গিস আহমেদ। তিনি বলেছেন, এ কনভেনশন যাতে আমেরিকার মূলধারায় গ্রহণযোগ্যতা পায় সে লক্ষ্যে কাজ চলছে। আমেরিকায় বেড়ে ওঠা নতুন প্রজন্ম এ কনভেনশনের বিভিন্ন ইভেন্টে যাতে সম্পৃক্ত হয় সে জন্য বিভিন্ন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। তবে কনভেনশন সফল করতে অর্থনৈতিক যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল সে প্রত্যাশা পূরণ বেশ কষ্টসাধ্য হয়ে উঠেছে। নার্গিস আহমেদ অভিযোগ করেন, যেসব ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান ফোবানা কনভেনশনে অর্থনৈতিক সহযোগিতা করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল কতিপয় ব্যক্তি তাদেরকে নানা বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন এবং এতে করে তাদের সহযোগিতার পরিমাণ কমে আসছে।
গতকাল বৃহস্পতিবার সাপ্তাহিক ‘আজকাল’কে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে নার্গিস আহমেদ আসন্ন ফোবানা কনভেনশনের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে খোলামেলা কথা বলেন।
তিনি বলেন, ২০১৭ সালে যখন ড্রামা সার্কল ফোবানা সম্মেলন করার দায়িত্ব পায় তখন থেকে আমরা আশায় বুক বেঁধে কাজ শুরু করি। নিউইয়র্কসহ উত্তর আমেরিকার সর্বস্তরের মানুষ যাতে এ ফোবানায় অংশ নেন এবং কনভেনশনের কথা মানুষের মধ্যে ছড়িয়ে দিতে আমরা সচেষ্ট হই।
নার্গিস আহমেদ বলেন, সময়ের চাকা গড়িয়ে ফোবানা কনভেনশন ক্রমেই কাছে চলে আসছে। আগামী ৩১ আগস্ট শুরু হয়ে ১ ও ২ সেপ্টেম্বর অনুষ্ঠিত হবে এই ৩৩তম ফোবানা কনভেনশন। এ কনভেনশনের ভেন্যু বিশ্বের দশটি সেরা ভেন্যুর একটি। ফোবানা কনভেনশন অনুষ্ঠিত হবে নিউইয়র্কের নাসাউ কলোসিয়ামে।
এ ভেন্যুতে ১০ হাজারেরও বেশি বাংলাদেশিদের সম্মিলন ঘটবে এমন আশা ব্যক্ত করে নার্গিস আহমেদ বলেন, ৩১ আগষ্ট সন্ধ্যায় নাসাউ কলোসিয়ামের কাছেই ম্যারিয়ট হোটেলে পর্দা উঠবে ৩৩তম ফোবানা কনভেনশনের। এ কনভেনশন উদ্বোধন করা কথা রয়েছে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে নিউইয়র্কের গভর্ণর এন্ড্রু কুমো, মেয়র বিল ডি ব্লাজিও, কংগ্রেসম্যান মিক্স গেগরি, কংগ্রেস ওম্যান গ্রেস মেং ও ওকাসিও কর্টেজ, স্টেট সিনেটর জন ল্যু প্রমুখকে। এ ছাড়াও নাসাউ কাউন্টির মেয়রসহ আরো অনেক বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ উদ্বেধনীতে উপস্থিত থাকবেন বলে নার্গিস আহমেদ আশা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, উদ্বোধনী সন্ধ্যায় শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে সময় সাপেক্ষে আমন্ত্রিত একজন শিল্পীর সঙ্গীত পরিবেশনের ব্যবস্থা থাকবে। পরিদিন ১ সেপ্টেম্বর শনিবার শুরু হবে মূল অনুষ্ঠান, যা রোববার পর্যন্ত চলবে।
নার্গিস আহমেদ বলেন, কনভেনশনস্থলের সাড়ে ৬ হাজার বর্গ ফুট জায়গা বরাদ্দ করা হয়েছে বিভিন্ন স্টলের জন্য। স্টলপ্রতি ভাড়া নির্ধারণ করা হয়েছে এক হাজার ডলার। স্টলগুলির আয়তন হবে ১০ থেকে ১২ ফুট। যেখানে দুটি চেয়ার ও একটি টেবিল থাকবে। তবে কোন ধরনের খাবার এ সব স্টলে আনা যাবে না। খাবারের জন্য শুধুমাত্র খাবারের ভেন্ডরের স্টল থাকবে। স্টলগুলোর মাঝখানের খালি জায়গায় থাকবে একটি মঞ্চ। যে মঞ্চে নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হবে।
নার্গিস আহমেদ বলেন, এবারের ফোবানা কনভেনশনের মূল প্রতিপাদ্য হল ‘আওয়ার চিলড্রেন, আওয়ার প্রাইড’। এ বিষয়টিকে মাথায় রেখে কনভেশনে নতুন প্রজন্মের সন্তানদের জন্য একটি কক্ষ ছেড়ে দেয়া হবে। যেখানে তাদের জন্য নানা ইভেন্টে অংশ নেয়ার সুযোগ থাকবে।
নার্গিস আহমেদ বলেন, কনভেনশনে নিউইয়র্ক ছাড়াও বিভিন্ন স্টেটের কয়েক ডজন সংগঠন নিবন্ধিত হয়েছে। চূড়ান্ত নিবন্ধনের বিষয়টি জুলাইয়ের শেষ নাগাদ সম্পন্ন হয়ে যাবে। অন্য স্টেট থেকে আসা প্রতিনিধি সহ অন্য সকলের জন্য ম্যারিয়ট হোটেলে ৪০০ টি রুম বুকিং দিয়ে রাখা হয়েছে। যে কেউ অন লাইনে গিয়ে তা এই বুকিং কনফার্ম করতে পারবেন ।
তিনি বলেন, কনভেনশন ভেন্যুতে পর্যাপ্ত পার্কিংয়ের ব্যবস্থা রয়েছে। কনভেনশনের প্রবেশ মূল্য ধার্য করা হয়েছে একদিনের জন্য জনপ্রতি ৩০ ডলার (সাধারণ)। এছাড়া কনভেনশনের নিচ তলায় ৫০, ১০০ ও ১৫০ ডলারের টিকিটের ব্যবস্থা থাকছে।
নার্গিস আহমেদ বলেন, কনভেনশনে অন্তত আটটি বিষয়ে সম্মেলনের ব্যবস্থা থাকবে। সন্ধ্যার পর থাকবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এসব অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ও প্রবাসের জনপ্রিয় শিল্পীরা সঙ্গীত পরিবেশন করবেন। থাকবে নৃত্য আয়োজনসহ চমকপদ আরো নানা পর্ব।
তিনি বলেন, কনভেনশন সফল করতে ফোবানা এক্সিকিউটিভ কমিটির চেয়ারম্যান মীর চৌধুরী, এক্সিকিউটিভ সেক্রেটারি জাকারিয়া চৌধুরী, কনভেনশন হোস্ট কমিটির মেম্বার সেক্রেটারি আবীর আলমগীর প্রমুখসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে নিয়ে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।
কনভেনশনের সম্ভাব্য ব্যয় ও বাজেট প্রসঙ্গে নার্গিস আহমেদ বলেন, নাসাউ কলোসিয়ামের এক দিনের ভাড়া ১ লক্ষ ২০ হাজার ডলার। আমরা ওখানে দুই দিন অনুষ্ঠান করব। ফলে দুই দিনের ভাড়া ২লক্ষ ৪০ হাজার ডলারসহ আরো অন্যসব ব্যয়ের হিসাব ধরে আমরা প্রায় ৫ লাখ ডলারের বাজেট নির্ধারণ করেছি। কিন্তু অর্থ সংগ্রহের এ প্রত্যাশা পূরণে আমরা বিভিন্ন ধরনের বাধার সম্মুখীন হচ্ছি। কতিপয় স্বার্থান্বেষী ব্যক্তি আমাদের পৃষ্ঠপোষক ও স্পন্সরদের এই কনভেনশন সম্পর্কে নানাভাবে বিভ্রান্ত করছেন। এমনকি আমাদের যেসব পেট্রন ১০ হাজার ডলার দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন তাদের কাছেও ওই ব্যক্তিরা দুরভীসন্ধিমূলক আমাদের সম্পর্কে অপপ্রচার চালাচ্ছেন এবং বিভ্রান্তি সৃষ্টি করছেন। যা কোনভাবেই কাম্য নয়।
নিউইয়র্কে একই সময়ে আর একটি ফোবানা অনুষ্ঠানের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে নার্গিস আহমেদ বলেন, লাগার্ডিয়া ম্যারিয়টে একটি ফোবানার আয়োজন করা হচ্ছে, যাকে আমি অবৈধ বলে মনে করি। সত্যিকার অর্থে আমাদের ফোবানাই প্রকৃত ফোবানা। আমাদের ফোবানার ইউএস ট্রেড মার্ক রয়েছে। কিন্তু কিছু ব্যক্তি আমাদের লোগোকে একটু পরিবর্তন করে নতুন কর্পোরেশন খুলে অবৈধভাবে ফোবানা কনভেনশন করার চেষ্টা করছেন।
ওই ফোবানা বন্ধ করার জন্য সম্প্রতি দায়ের হওয়া একটি মামলার প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে নার্গিস আহমেদ বলেন, এসব বিষয়ে আইনি লড়াইয়ের দিকটি দেখবে ফোবানার এক্সিকিউটিভ কমিটি। আমাদের হোস্ট কমিটির দায়িত্ব একটি সুন্দর কনভেনশন উপহার দেয়া।
নার্গিস আহমেদ বলেন, আমি বিশ্বের ১০টি সেরা কনভেনশন ভেন্যুর একটিতে ফোবানা কনভেনশন করছি। দুই দিনে ২ লক্ষ ৪০ হাজার ডলার ভাড়া দেয়ার ঝুঁকি নিয়েছি। আমি কমিউনিটির সবার কাছে আবেদন জানাব, আমি আপনাদের বোন, আপনাদের বন্ধু। আমি ২ লক্ষ ৪০ ডলার এবং সার্বিকভাবে ৫ লাখ ডলারের ঝুঁকি নিয়েছি। আপনারা অন্তত একদিন ৩০ ডলারের ঝুঁকি নিয়ে আমাদের কনভেনশনে আসুন।
তিনি বলেন, আমেরিকায় ফোবানা কনভেনশন এখন পূর্ণ যৌবনে রয়েছে। ফোবানা প্রতিষ্ঠার ৩২ বছর পার হয়ে গেছে। এখন মূলধারার কাছে ফোবানা বা আমাদের পাওয়ার সময় এসেছে। তাই সবাই আসুন, ৩৩তম ফোবানা কনভেনশন সফল করতে হাতে হাত রেখে এগিয়ে যাই।
তিনি বলেন, আমি মনে করি যারা বাংলাদেশের সবুজ পাসপোর্ট নিয়ে প্রবাসে আছেন তাদের সবার এ ফোবানা কনভেনশনে আসা নৈতিক দায়িত্বের মধ্যে পড়ে। এছাড়া যারা অবৈধ ফোবানা করার চেষ্টা করছেন তাদের বিরুদ্ধে প্রবাসীদের রুখে দাঁড়ানোর ব্যাপারেও গুরুত্বারোপ করেন নার্গিস আহমেদ।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.