বৃহস্পতিবার , ১৯ সেপ্টেম্বর ২0১৯, Current Time : 3:35 am




রাহুলের বিকল্প খুঁজতে নাম উঠছে সোনিয়ারও

সাপ্তাহিক আজকাল : 11/06/2019

রাহুল গান্ধী সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, গান্ধী পরিবারের বাইরের কাউকেই তাঁর বিকল্প হিসেবে বেছে নিতে হবে দলকে। কিন্তু গান্ধী পরিবারকে বাইরে রেখে কোনো রকম বিকল্প খোঁজার পক্ষপাতী নন কংগ্রেসের শীর্ষ নেতারা। প্রাথমিকভাবে নেতারা ঠিক করেছেন, রাহুল যদি একান্তই সভাপতি পদে থাকতে না চান, তা হলে আপাতত এই দায়িত্ব সোনিয়া গান্ধীকেই নিতে হবে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার

লোকসভা নির্বাচনে ভরাডুবির পর থেকে রাহুল গান্ধী নিজের ইস্তফার ব্যাপারে অনড়। যদিও কংগ্রেসের ওয়ার্কিং কমিটি তাঁর ইস্তফা খারিজ করে দিয়েছে। কিন্তু দলের অনেকে মনে করেন, ওয়ার্কিং কমিটি কোনো প্রস্তাব পাশ করলেও কংগ্রেসের সভাপতির অধিকার আছে সেটিকে না মানার। গত কয়েক সপ্তাহে রাহুলকে সভাপতি পদে থাকার জন্য যথাসম্ভব চেষ্টা করেছেন দলের শীর্ষ নেতারা। কিন্তু মানছেন না তিনি। অগত্যা এখন রাহুলের বিকল্প নিয়ে ভাবনাচিন্তা শুরু করে দিয়েছেন দলের শীর্ষ নেতারা।

এমনই এক শীর্ষ নেতা বলেন, ‘আমাদের কাছে আদর্শ উপায় হলো, রাহুলকেই বুঝিয়ে সভাপতি পদে রেখে দেওয়া। কিন্তু যদি তিনি একান্তই না মানেন, তা হলেও গান্ধী পরিবারকে বাদ দিয়ে আমরা কোনো বিকল্পের সন্ধান করতে চাইছি না।’ অথচ ওয়ার্কিং কমিটির বৈঠকে রাহুল স্পষ্ট বলেছেন, ‘আমি সভাপতি থাকব না বলে আমার বোনের কথাও ভাববেন না। গান্ধী পরিবারের বাইরের কাউকে নতুন সভাপতি হিসেবে খুঁজুন।’ রাহুলের এই অনড় মনোভাব দেখেই এখন দ্বিধায় রয়েছেন নেতারা।

রাহুল এ নিয়ে আলোচনা করতে না চাইলেও শীর্ষ নেতারা সোনিয়া ও প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে আলোচনা করেছেন। তাঁদের সঙ্গে দফায় দফায় গত কয়েক দিন ধরে আলোচনা করেছেন সোনিয়ার একদা রাজনৈতিক সচিব আহমেদ পটেল, গুলাম নবি আজাদ, এ কে অ্যান্টনি, মল্লিকার্জুনের মতো নেতারা। প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের পরামর্শও নেওয়া হয়েছে। প্রাথমিকভাবে নেতারা ঠিক করেছেন, রাহুল যদি একান্তই সভাপতি পদে থাকতে না চান, তা হলে আপাতত এই দায়িত্ব সোনিয়া গান্ধীকেই নিতে হবে।

এর কারণ হিসেবে কংগ্রেসের নেতারা বলছেন, ‘প্রথমত এই মুহূর্তে রাহুলের কোনো বিকল্প নেই। আর রাহুল রাজি না হলে একমাত্র সোনিয়া গান্ধীই পারেন গোটা দলকে এক সঙ্গে রাখতে। অন্য যে কোনো নেতাকে দায়িত্ব দিলে দলের মধ্যে অরাজকতা তৈরি হতে পারে। নতুন সভাপতির কথা অন্য কোনো নেতা না-ও শুনতে পারেন।’

এসব ভেবে সোনিয়াকে মাথায় রেখেই একজন বা দুজন কার্যনির্বাহী সভাপতি করার কথা ভাবা হচ্ছে। দলের যাবতীয় সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য অতীতের ধাঁচে একটি সংসদীয় বোর্ডও গঠন করা হতে পারে। সংসদের অধিবেশন শুরু হবে আগামী সপ্তাহ থেকে। তার আগেই এই বিষয়টি পাকা করে ফেলতে চাইছেন কংগ্রেস নেতারা। কিন্তু তাঁদের আশঙ্কা, সনিয়ার হাতে ভার তুলে দেওয়ার প্রস্তাবেও রাজি না হতে পারেন রাহুল। সে ক্ষেত্রে গান্ধী পরিবারের বাইরে কাকে সভাপতি করা যেতে পারে, সেটি বাছাই করাই সব থেকে বড় চ্যালেঞ্জ কংগ্রেসের কাছে। সে ক্ষেত্রে আজাদ, মল্লিকার্জুন কিংবা পৃথ্বীরাজ চহ্বানের ভাগ্যে শিকে ছিঁড়তে পারে।



Chief Editor & Publisher: Zakaria Masud Jiko
Editor: Manzur Ahmed
37-07 74th Street, Suite: 8
Jackson Heights, NY 11372
Tel: 718-565-2100, Fax: 718-865-9130
E-mail: [email protected]
� Copyright 2009 The Weekly Ajkal. All rights reserved.